রান্না

সহজ রান্নার কৌশল

রান্নাবান্নার কাজে অধিক স্বাচ্ছন্দ্য নিয়ে আসতে প্রয়োজনীয় টুকিটাকি তথ্য দেয়া হলো। রান্না যখন সহজ তখন রান্নার আনন্দও বেড়ে যায় দ্বিগুণ – নিজেই পরখ করে দেখুন।

১) ভিজিয়ে রাখা বা ম্য়ারিনেশনঃ রান্নার আগে থেকেই উপকরণগুলি মশলাতে ভিজিয়ে রাখলে বা ম্যারিনেশন করে রাখলে রান্নার স্বাদ বাড়ে, সহজে রান্না হয়ে যায় বলে সময়েও সাশ্রয় হয়। ভাত, পোলাও, ফ্রাইড রাইস বা বিরিয়ানি – যাই রাঁধুন বা কেন প্রথমে আধঘন্টা কিছুটা লবণ ও লেবুর রস দিয়ে ভিজিয়ে তারপর সিদ্ধ করলে চাল চাড়াতাড়ি সিদ্ধ হয়, নরম হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়।

২) বেকিংঃ ওভেনে রান্না করার সময়ে কাঁচা খাদ্যদ্রব্যকে ম্যারিনেট করে নিতে হবে। প্রথমেই ওভেন নির্ধারিত তাপমাত্রায় গরম করে নিতে হবে, হইলে শুধুমাত্র খাদ্যবস্তুর উপরের অংশই পুড়বে, ভিতরটা কাঁচা থেকে যাবে।

৩) মাংস রান্নার সময়ে কয়েক ফোঁটা পেঁপের আঠা বা কয়েক টুকরো কাঁচা পেঁপে অথবা একটা আস্ত সুপারি দিয়ে দিলে প্রেসার কুকার ছাড়াই তাড়াতাড়ি সিদ্ধ করা যায়।

৪) আলু গোল না করে কেটে লম্বালম্বি করে কাটলে তা সহজে সিদ্ধ হয়।

৫) গ্রেভিঃ পেঁয়াজ, রসুন, আদা, ধনিয়া, জিরা, বাদাম, প্রভৃতি বেটে তার সঙ্গে টমেটো, দই মিশিয়ে ঘন করে গ্রেভি বা কারি তৈরি করা হয়। কিছু মশলা কড়াইতে গরম করে নিলে গ্রেভির স্বাদ বৃদ্ধি পায়।

৬) বেগুন ছোট করে কেটে রান্নার কিছুক্ষণ আগে তাতে লবণ মাখিয়ে পানি ফেলে দিয়ে ভাজলে তাতে তেল কম লাগে।

৭)  প্রথমে খালি কড়াই ভালো করে গরম করে দিয়ে তারপর তেল কড়াইতে সহজে পোড়া দাগ ধরে না।

৮)  সুজি ভেজে শুকনো পাত্রে রাখলে তাতে পোকা ধরে না।

৯)  বিস্কিটকে মচমচে রাখতে টিনের পাত্রে ভরে রাখুন।

১০) মাছের আঁশটে গন্ধ দূর করতে হাতে সরিষার তেল মেখে নিন।

১১)  পেঁয়াজ প্রথমে দু’ফালি করে নিয়ে কিছু সময় পানিতে ভিজিয়ে রেখে তারপর কাটলে চোখে জ্বালাএওড়া হয় না, চোখ দিয়ে পানি পড়ে না।

১২) মরিচ কাটলে বা বাটলে হাত জ্বালা করে। ঠান্ডা দুধের সর লাগান বা ঠান্ডা দুধ দিয়ে ধুয়ে নিন – ব্যস জ্বালা কমে যাবে। হাত পুড়ে গেলেও সাথে সাথে ঠান্ডা দুধ দিলে কাজ হয়।

১৩) রসুন সামান্য পানিতে ভিজিয়ে রেখে সহজেই খোসা ছাড়ানো যায়, সেই সাথে নখেও ব্যথা লাগে না।

১৪) সালাদের লেটুস পাতা অনেক সময়ে নরম হয়ে যায়। খুন ঠান্ডা পানিতে ২০ মিনিট রেখে তাতে সামান্য চিনি মিশিয়ে নিলে নরমভাবে কমে যায়।

১৫) কাটা ফল যাতে কালো না হয় তার জন্য ফল কেটে স্টিলের বাটিতে রাখুন।

১৬) কাঁচের গ্লাসে গরম কিছু ঢালার আগে একটি চামচ রেখে নিলে তা ফেটে যাবার সম্ভাবনা কমে যায়।

১৭)  চায়ের কাপে লেগে থাকা বাদামি দাগ লবণ দিয়ে মাজলেই উঠে যায়।

১৮) ফ্রিজ বা মাইক্রোওয়েভ ওভেনে একই খাবার বারবার গরম এবং ঠান্ডা করলে তাপমাত্রার পরিবর্তনের কারণে খাবারটি জীবাণুদ্বারা আক্রান্ত হতে পারে।

এমনই অনেক কৌশল অবলম্বন করে আপনি আপনার নিত্যদিনের রান্নাকে অনেক বেশি সহজ করে তুলতে পারেন।


Leave Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

কপিরাইট ২০১৯© allbanglarecipes.com সর্বাধিকার সংরক্ষিত।