স্পেশাল ফ্রাইড রাইস

স্পেশাল ফ্রাইড রাইস

ফ্রাইড রাইস আমাদের সকলের প্রিয় একটা রাইস ডিশ। বিভিন্ন রকমের ফ্রাইড রাইস রয়েছে যেমন চিকেন ফ্রাইড রাইস, ভেজিটেবল ফ্রাইড রাইস ইত্যাদি। এখানে স্পেশাল ফ্রাইড রাইসের একটা রেসিপি দেওয়া হল যাতে ভেজিটেবল, চিকেন, চিংড়ি ইত্যাদি সঠিক অনুপাতে ব্যবহার করা হয়েছে।

ফ্রাইড নুডল্‌স উইথ বিফ

ফ্রায়েড নুডল্‌স উইথ বিফ

নুডল্‌স কার না প্রিয়! বিফ এবং সবজির সাথে নুডল্‌স বেশ ভালো যায়। তাহলে দেখে নেওয়া যাক ‘ফ্রাইড নুডল্‌স উইথ বিফ’ রেসিপি টি।

পাইনঅ্যাপেল ফ্রাইড রাইস

পাইনঅ্যাপেল ফ্রাইড রাইস

আনারসের স্বাদে পাইনঅ্যাপেল ফ্রাইড রাইস সত্যিই মজাদার। চাইনিজ ফ্রাইডরাইসগুলোর মধ্যে পাইনঅ্যাপেল ফ্রাইড রাইস অন্যতম। ফ্রেশ পাইনঅ্যাপেল দিয়ে করা হয় এই রাইস তবে ফ্রেশ না পাওয়া গেলে ক্যান পাইনঅ্যাপেল ব্যবহার করা যায়।

আবার খাবো সন্দেশ

আবার খাবো সন্দেশ

আবার খাবো সন্দেশ কোলকাতার একটা জনপ্রিয় সন্দেশ। ফ্রেশ ছানা ও ক্ষীর দিয়ে তৈরি এই সন্দেশ খেতে খুব মজা। একটা খেলেই মনে হয় আবার খাবো। সেজন্যই বুঝি এরূপ নামকরণ। ছানার সন্দেশের ভিতরে থাকে খোয়া ক্ষীরের পুর। পেস্তা বাদাম দিয়ে সাজানো হয় এই সন্দেশ। তবে এই রেসিপিতে কাঠবাদাম ব্যবহার করা হয়েছে।

বেসনের লাড্‌ডু

বেসনের লাড্‌ডু

বেসন সাধারণত আমরা ক্রিসপি ব্যাটার তৈরিতে ব্যবহার করি কিন্তু এটা দিয়েও হতে পারে অসাধারণ লাড্‌ডু যা একবার খেলে স্বাদ মুখে লেগে থাকে। ট্রেডিশনালি এতে ঘি ব্যবহার করা হয়। তবে আপনি চাইলে সয়াবিন বা মাখন ব্যবহার করতে পারেন। তাতে স্বাদের খুব একটা তারতম্য় হয় না।

রসুনের আচার

রসুন ও কাঁচামরিচের আচার

রসুন ও কাঁচামরিচের অনেক গুন। তরকারিতে এগুলো ব্য়বহার করা হলেও অনেক সময় আমরা বেছে ফেলে দিই। কিংবা দীর্ঘক্ষণ জ্বাল দেওয়ার ফলে এর গুনাগুন অনেকাংশে নষ্ট হয়ে যায়। তাই দেখে নেওয়া যাক রসুন ও কাঁচামরিচের আচারের একটা রেসিপি যেটা খেতে যেমন মজা তেমনি রয়েছে স্বাস্থ্যের জন্য উপকারিতা। আবার সংরক্ষনও করা যায় অনেকদিন।

স্টার ফ্রাইড বিফ

স্টার ফ্রায়েড বিফ

স্টার ফ্রায়েড বিফ চাইনিজ খাবার গুলোর মধ্যে অন্যতম। এতে থাকে সয়াসস তাই এর স্বাদটাও বৃদ্ধি পায়। তাছাড়া বিভিন্ন সবজি মেশানো হয় বিধায় এটা স্বাস্থ্যকরও বটে।

শিক কাবাব

শিক কাবাব

আমাদের দেশে যেসব কাবাব জনপ্রিয় তার মধ্যে শিক কাবাব অন্যতম। এই কাবাব শিকে গেঁথে তৈরি করা হয় বলে এর নাম শিক কাবাব। গরু বা খাসির মাংস দিয়ে এটা করা হয়। আগুনের উপরে সরাসরি ঝলসানো হয় এই কাবাব।

গরুর মাংসের কালা ভুনা

গরুর মাংসের কালো ভুনা – ২

গরুর মাংসের কালো ভুনা বা কালা ভুনা চট্টগ্রামের একটি ঐতিহ্যবাহী একটা খাবার। এর স্বাদ খুবই চমৎকার। দেখতে কালো হয় বলে এর নাম কালো ভুনা। বাংলাদেশের অনেক রেস্টুরেন্টেই কালো ভুনা পাওয়া যায়। এটা তৈরিতে অনেক ধরনের মশলা সঠিক অনুপাতে ব্যবহার করা হয়।

বেগুনের সুফলে

বেগুনের সুফলে

আমরা সাধারণত চকলেট সুফলে বা চিজ সুফলে ইত্যাদির সাথে পরিচিত। কিন্তু বেগুন দিয়েও তৈরি হতে পারে টেস্টি সুফলে। চলুন দেখে নিই রেসিপি টি।

তেহারী পোলাও

তেহারী পোলাও

আমাদের রেশের পোলাও ডিশের মধ্যে তেহারির বেশ জনপ্রিতা রয়েছে। খাসি বা গরু দুই ধরনের মাংস দিয়ে তেহারি তৈরি করা হয়ে থাকে। তবে গরুর মাংসের তেহারিই বেশি জনপ্রিয়।

দুধের বরফি

দুধের বরফি

যেকোন মিষ্টি জাতীয় খাবার তৈরি করতে দুধের জুড়ি নেই। ঘন দুধ দিয়ে তৈরি কালাকান্দ মিষ্টি বা দুধের বরফি খেতে কেমন তা তৈরি করে না খেলে বলে বোঝানো যাবে না। তাই ঝটপট দেখে নিন রেসিপিটি।

ডিমের স্টিক রোল

ডিমের কাঠি রোল

ডিমের কাঠি রোল একটি ইন্ডিয়ান ফুড আইটেম। খেতে মজাদার ও সুস্বাদু হয়। পরোটার মধ্যে ডিমের পুর দিয়ে এই রোলটা তৈরি করা হয় আর কাঠি ব্যবহার করা হয় আর আকৃতি বজায় রাখতে ও রোলটা জোড়া দিতে। তাই এর এরূপ নামকরণ।

কুনাফা

কুনাফা

কুনাফা মধ্যপ্রাচ্যের একটি ডেজার্ট। সেমাই দিয়ে এটা তৈরি করা হয়। দেখতে কেকের মত হয়। ওপর দিয়ে বাদাম দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করা হয়।

বিস্কিট

বিস্কিট

বিস্কিট আমাদের সবার পরিচিত মজাদার একটা স্ন্যাক। বিকেলের নাস্তায় কি মেহমান আপ্যায়নে কি চায়ের সাথে বিস্কিটের জুড়ি মেলা ভার। সব কনফেকশনারিতেই বিস্কিট পাওয়া যায় কিন্তু তাতে কি! সামান্য কিছু উপাদান দিয়ে বাসেতেই আপনি তৈরি করে ফেলতে পারেন মজাদার বিস্কিট। এবার তেমনই একটি বিস্কিটের সহজ রেসিপি দেখে নেওয়া যাক।

সুজির আফলাতুন

সুজির আফলাতুন

সুজির আফলাতুন কেক এবং মিষ্টির মাঝামাঝি একটি ডেজার্ট। সুজি, ময়দা, ডিম, তেল ইত্যাদি সটিক অনুপাতে মিশিয়ে ডেজার্ট টি তৈরি করা হয়।

ঝিঙার খোসা ভর্তা

ঝিঙের খোসা ভর্তা

তরি তরকারির বা খাবারের অনেক অংশই আমরা ফেলে দিই যা দিয়ে অনেক সময় তৈরি করা যায় মুখরোচক কিছু খাবার। ঝিঙের খোসার ভর্তা তেমনই একটা খাবার। তাছাড়া সবজির খোসায় থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও মিনারেলস ও ফাইবার। তাই স্বাস্থ্যের জন্যও ভালো। গরম ভাতের সাথে এই ভর্তা খুব ভালো লাগবে।

সুই পিঠা

সুই পিঠা

সুই পিঠা আতপ চালের তৈরি মচমচে একটা পিঠা। সুই দিয়ে ডিজাইন করা হয় বলে এটা সুই পিঠা নামে পরিচিত। এক ধরনের নকশী পিঠাও বলা চলে। মোটা সাইজের সুই না থাকলে তার পরিবর্তে খেজুর কাঁটা ব্যবহার করতে পারেন।

আলু পনির কুলচা

আলু পনির কুলচা

আলু পনির কুলচা একটি ইন্ডিয়ান খাবার। অনেকটা নান রুটির মতো ও‌ভেনে বেক করা হয়ে থাকে। এখানে একটি সহজ আলু ও পনিরের কুলচার রেসিপি দেওয়া হলো। এখানে পনির বলতে ফ্রেশ পনির বা কটেজ চিজ যা ছানা নামে পরিচিত সেটাই ব্য়বহার করা হয়েছে। তবে বাজারে যে পনির কিনতে পাওয়া যায় সেটা দিয়েও করা যায়। এটা তাওয়া বা […]

বাসায় তৈরি জেলি

ঘরে তৈরি জেলি

বাজারে প্য়াকেট জেলি পাওয়া যায়। কিন্তু কিছু উপাদান থাকলে ঘরেই তৈরি করা যায় রং বেরঙের জেলি যা বিভিন্ন ডেজার্ট বা মিষ্টি জাতীয় খাবারে ব্যবহার করা যায়। ফালুদাতেও এই জেলি ব্যবহার করা যাবে।

সবজি রুটি

সবজি রুটি

একটু হেলদি থাকতে চাইলে সকালের নাস্তায় রুটি খাওয়ার বিকল্প নেই। আর তা যদি হয় সবজি রুটি তা হলে তো কথাই নেই। এটা আপনার পছন্দমতো সবজি যেমন পেঁপে, গাজর ইত্যাদি দিয়ে করতে পারবেন। এটা মুরগির মাংসের তরকারি দিয়ে খেতে ভাল লাগে। (Recipe author: Rowshon Ara Faruk)

এগ ভেজিটেবল ফ্রাইড রাইস

এগ ভেজিটেবল ফ্রাইড রাইস

ফ্রাইড রাইসের মধ্যে যারা মাংস এড়িয়ে চলতে চান ও ভেজিটেবল অপশন চান তাদের জন্য এগ ভেজিটেবল ফ্রাইড রাইস বেশ উপযোগী। ঠিকমতো করতে পারলে স্বাদ চিকেন ফ্রাইড রাসের চেয়ে কোন অংশে কম নয়।

বিফ টিক্কা

বিফ টিক্কা

টিক্কা কাবাবের মধ্যে মনে হয় বিফ টিক্কাই সবচেয়ে জনপ্রিয়। কারণ এতেই টিক্কা কাবাবের প্রকৃত স্বাদ পাওয়া যায়। চলুন ঝটপট দেখে নেওয়া যাক এর রেসিপি টি।

কড়াই বিফ

কড়াই বিফ

কড়াই বিফ গরুর মাংসের একটি সুস্বাদু পদ। কড়াইতে রান্না করা হয় বলে এর এরূপ নামকরণ। খাবারটি মশলাদার তাই ভাত বা রুটি -পরোটার সাথে খেতে ভালো লাগবে।

চকলেট সুইস রোল

চকলেট সুইস রোল

কেক জাতীয় ডেজার্টের মধ্যে সুইস ররোল অন্যতম। সাধারণত পাতলা কেকের ভিতরে জ্যাম জাতীয় মিক্সার দিয়ে রোল করে সুইস রোল তৈরি করা হয়ে থাকে। সুইস রোলের অনেক রকম ভ্যারিয়েশন রয়েছে। এখানে চকলেট সুইস রোলের একটা রেসিপি দেওয়া হলো।

রসগোল্লা

রসগোল্লা ২

রসগোল্লা আমাদের দেশের ট্রেডিশনাল একটা মিষ্টি। এর অনেক রকম রেসিপি রয়েছে। কিছু রেসিপি হাল্কা মিষ্টি, কিছু রেসিপিতে শুধু পিওর ছানা ব্যবহার করা হয়। আবার কিছু রেসিপিতে ছানার সাথে ব্যবহার করা হয় সুজি বা সামান্য ময়দা।

প্রণ ইন সুইট কোকোনাট কারি

নারকেল আর চিংড়ি দুটাই খুব টেস্টি উপাদান। এই দুয়ের সমন্বয়ে তৈরি চিংড়ির মালাইকারির কথা আমরা সবাই জানি। কিন্তু প্রণ ইন সুইট কোকোনাট কারির স্বাদও কোন অংশে কম নয়।

কপিরাইট ২০১৭© allbanglarecipes.com সর্বাধিকার সংরক্ষিত।